বোরকা নিষিদ্ধের প্রস্তাব শ্রীলঙ্কার

 

শ্রীলঙ্কা সরকার জাতীয় নিরাপত্তার যুক্তি দেখিয়ে জনসমক্ষে বোরকা ও নিকাবসহ সবধরনের মুখ ঢাকা পোশাক পরা নিষিদ্ধ করার গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে।এছাড়াও দেশটিতে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে হাজারের বেশি মাদ্রাসা।

দেশটির জননিরাপত্তা মন্ত্রী শরৎ বীরসেকারা এক সংবাদ সম্মলনে জানান, বোরকা নিষিদ্ধ করার এক নির্দেশে তিনি সই করেছেন।এটি কার্যকর করতে মন্ত্রিসভার অনুমোদন লাগবে।মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিলে নারীরা আর বোরকা পড়তে পারবে না।তিনি এও বলেন জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে বোরকা নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।মন্ত্রী বলেন, খুব দ্রুত এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে বলে তিনি আশা করছেন।

মাদ্রাসা বন্ধের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন,জাতীয় শিক্ষানীতির সাথে সাংঘর্ষিক এসব প্রতিষ্ঠান চলতে দেওয়া যাবে না।যার কারণে ওই দেশে চলমান হাজারের বেশি মাদ্রাসা তুলে দেবার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সরকার।

প্রায় দু বছর আগে ও সরকার বোরকা নিষিদ্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছিল।২০১৯ খ্রিস্টানদের ইস্টার সানডে র পরের দিন শ্রীলঙ্কায় হোটেল ও কয়েকটি গির্জার ওপর সমন্বিত কয়েকটি হামলার পর দেশটির সরকার এই উদ্যোগ নেয়। ইসলামিক স্টেট জঙ্গী গোষ্ঠী এই হামলার দায় স্বীকার করে।

কর্তৃপক্ষ জঙ্গীদের ধরতে অভিযান চালায় এবং সেসময় বৌদ্ধদের এই দেশটিতে জরুরিকালীন পদক্ষেপ হিসাবে সবধরনের মুখ ঢাকা পোশাক পরার ওপর স্বল্প মেয়াদী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

এছাড়াও মুসলিমদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন আরও একটি নির্দেশ দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা সরকার।করোনা রোগে আক্রান্ত কোনো মুসলিম মারা গেলে তাকে কবর না দিয়ে দাহ করতে হবে। এ বিষয়ে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলার পর দেশটির সরকার এ নিয়ম তুলে নিতে বাধ্য হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *